Tricker

6/recent/ticker-posts

এশিয়া কাপে ফাইনাল ম্যাচে পাকিস্তানকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন শ্রীলংকা দল

এশিয়া কাপের ফাইনাল খেলায় পাকিস্তান দল টসে জিতে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত দেয় শ্রীলংকা দলকে। এশিয়া কাপের টি টোয়েন্টি ফাইনালে পাকিস্তানের প্রতিপক্ষ শ্রীলংকা তার কারণ জেনে নিন পাকিস্তান আফগানিস্তানের সাথে লড়াই করে আফগানিস্তানকে হারিয়ে এশিয়া কাপের ফাইনাল খেলার সুযোগ পেয়ে যায় পাকিস্তান দল। 



শ্রীলংকা দল প্রতিপক্ষ দল ভারতের সাথে লড়াই করে এশিয়া কাপের ফাইনাল খেলার সুযোগ পেয়ে থাকে শ্রীলংকা দল তারা শুরুটা করেছিল এশিয়া কাপে হেরে তারপর তাদের একের প এক জয় দিয়ে শ্রীলংকা দল ফাইনালে উঠে ঠিক সেইরকম একটা দল পাকিস্তান তারা তাদের সেরাটা দিয়ে খেলে ফাইনাল খেলার আগমন হয়। এশিয়া কাপের ফাইনালে এই দুই দল মুখোমুখি হবে হয়েছে বাংলাদেশ সময় রাত ৮ টার সময় তারিখ ১১ সেপ্টেম্বর ২০২২ এতো বড় মঞ্চে এই প্রথম বারের মতো এশিয়া কাপে ফাইনাল দিয়ে শেষ হবে এবারের আসর।

 


ব্যাটিং শ্রীলংকাঃ শ্রীলংকা দল টসে হেরে ব্যাটিং করতে মাঠে নেমে নাসেম শাহ বলে অর্থাৎ মাত্র ওভারের শুরুতেই তিন বলের সময় কুশল মেন্ডিস বোল্ড আউট হয়ে সাঁজ ঘরে ফিরে যান। তারপর ৩.২ ওভারের সময় রউফের বলে ক্যাচ আউট হয়ে সাঁজ ঘরে ফিরে যান পাথুম নিশাঙ্কা ক্যাচটি ধরেন পাকিস্তানের টি টোয়েন্টি অধিনায়ক বাবর আজম। এরপর আবার রউফ নিজের বলে নিজেই ৫.১ ওভারের সময় দানুস্কা গুনাথিলাকা আউট হয়ে সাঁজ ঘরে ফিরে যান পায়ারপ্লেতে শ্রীলংকা দল ৩৬ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে অনেকটা চাপের মধ্যে পরে যায়। 



অফ স্পিনার বোলার ইফতিখার নিজেই বল করে আবার নিজেই ক্যাচ তোলে নিয়ে ডানঞ্জয়া ডি সিলভা ২১ বলে ২৮ রান রান আউট হয়ে যান ৭.৪ ওভারে ৫৩ রানে ৪ উইকেট হারায় শ্রীলংকা ব্যাটসম্যানরা। পাকিস্তানের অলরাউন্ডার শাদাব খান বোলিং করতে এসে ৮.৫ ওভারের সময় দাসুন শানাকাকে আউট করেন শ্রীলংকার স্কোর বোর্ডে তখন রান ছিল ৫৮ এবং উইকেট হারায় ৫টা। পাকিস্তানের পেসার রউফ বোলিং করতে এসে ১৪.৫ ওভারের সময় ওনিন্দু হাসারাঙ্গা আউট হয়ে যান তবে ওনিন্দু হাসারাঙ্গার ব্যাট থেকে রান আসে ২১ বলে ৩৬ রান।



এরপর রাজাপাকসের অসাধারণ ব্যাটিং করেন তার ব্যাট থেকে রান আসে তিনি মাত্র ৪৫ বলে ৭১ রানের বিশাল বড় ইনিংস খেলেন এবং অপরাজিত থেকে ২০ ওভার শ্রীলংকা দল মোকাবেলা করে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৭০ রান তোলে এবং পাকিস্তান দলকে জয়লাভ করতে হলে ওভারে ১৭১ রান তোলতে হবে সেই লক্ষ্য নিয়ে পাকিস্তানের ব্যাটসম্যানরা মাঠে প্রবেশ করে ১৭১ রান সংগ্রহ করতে।


 


পাকিস্তানের ব্যাটিং জেনে নিনঃ পাকিস্তান দল টার্গেটে ব্যাটিং করতে মাঠে নেমে শুরুটা ভালো ছিল এরপর পাকিস্তানের ওপেনার ব্যাটসম্যান এবং অধিনায়ক বাবর আজম ৬ বলে ৫ রান করে আউট হয়ে যান শ্রীলংকার বোলার মাদুসান এর বলে আউট হয়ে যান বাবর আজম এবং ক্যাচটি ধরেন মাদুসানকা। ফখর জামান ব্যাটিং করতে এসে মাদুসান বলে আউট হয়ে যান এই সময় পাকিস্তানের স্কোর বোর্ডে রান ছিল ২২ রান এবং ২টা উইকেট হারায় মাত্র ৩.৩ ওভারের সময়। 



ইফতিখার আহমেদ ৩১ বলে ৩২ রান করে মাদুসান এর বলে আউট হয়ে সাঁজ ঘরে ফিরে যান এবং ক্যাচটি নিতে সক্ষম হন বান্দারা ৯৩ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে পাকিস্তান দল অনেকটা চাপে পরে যায় এবং এই সময় পাকিস্তানের ওভার ছিল ১৩.২ বল। ১০২ রানের সময় পাকিস্তান দল ৪ উইকেট হারিয়ে অনেকটা চাপে থাকে এরমধ্যে ১৫.২ বল খেলে পাকিস্তান দল ১০২ রান নিতে সক্ষম হয় মোহাম্মদ নাওয়াজ ৯ বল খেলে ৬ রান করে আউট হয়ে যান। 



হাসারাঙ্গার বলে আউট হয়ে যান আসিফ আলী ০ রান করে  ১১৬ রানে ৬ উইকেট হারিয়ে তখন ওভার ছিল ১৬.৩ ওভার এরপর পরের বল খেলতে গিয়ে হাসারাঙ্গার বলে আউট হয়ে যান খুশদিল শাহ। ১৪৭ রানে পাকিস্তান দল ১০ উইকেট হারিয়ে এশিয়া কাপের ফাইনালে শ্রীলংকার কাছে হেরে যায় এবং এশিয়া কাপের ফাইনালে এবারের আসরে চ্যাম্পিয়ন দল শ্রীলংকা। 

Post a Comment

0 Comments